জেনে নিন তালমিছরির নানা উপকারিতা
explore

জেনে নিন তালমিছরির নানা উপকারিতা

organicmudi tal misri

তালমিছরি খায় নি এমন কেউ আছে কি? মনে হয় না। মিষ্টি জাতীয় এই খাবারটি তালের রস থেকে তৈরি করা হয়। বিশেষ করে ছোট শিশুদের অনেক মায়েরাই দুধের সঙ্গে মিশিয়ে এটি খাওয়ান।

তাছাড়া বড়দের কাছেও এটি সমান জনপ্রিয়। তালমিছরির রয়েছে দারুন সব উপকারিতা। আসলে তালমিছরিতে কী কী আছে যার জন্য এটির এতো সুনাম? আসুন জেনে তার অল্প কিছু।

  • মিষ্টি খেলে কৃমির প্রকোপ নিয়ে যারা ভয়ে থাকেন, তালমিছরি তাদের প্রথম পছন্দ। কারন এটি সম্পূর্ণ ন্যাচারাল সুগার হওয়ায় কৃমির প্রকোপ থেকে আপনি থাকতে পারবেন নিশ্চিন্ত।
  • হাড় ও দাঁত শক্ত করতে তালমিছরি দারুন কার্যকর কারন এটি ক্যালসিয়াম আর পটাসিয়ামের খনি। এছাড়াও হাড়ের সমস্যা দূর করতেও এটি কাজে দেয়।
  • নারীদের মেনোপজের পরে হাড় ক্ষয়জনিত সমস্যা দূর করতে তালমিছরি খেলে উপকার পাওয়া যায়।
  • কাশি উপশম করতে তালমিছরির রস খাওয়া পুরনো ঘরোয়া টোটকা। এটি গলার শ্লেষ্মা নরম করে খুসখুসানি কমিয়ে দেয়। সর্দিতে এবং কাশিতে আগে মায়েরা বাচ্চাদের হাতে তুলে দিতেন এক টুকরো তালমিছরি যা ছিল নিরাময়ের জন্য যথেষ্ট।
  • খুব ছোট বাচ্চাদের জন্য ওষুধের বদলে তালমিছরি দারুন এক বিকল্প। এটি বাচ্চাদের ঠাণ্ডা সমস্যারও সমাধান করে।
  • বিশেষ এই মিষ্টান্নটি চোখের দৃষ্টি বাড়াতেও সাহায্য করে। মৌরী,বাদাম, গোলমরিচ এবং তালমিছরি একসঙ্গে গুঁড়া করে রোজ রাতে ১ চামচ করে এই মিশ্রণ দুধের সঙ্গে মিশিয়ে খান। চোখের সমস্যায় টনিকের মত কাজ করবে।
  • পেঁয়াজের রসের সঙ্গে তালমিছরি –  কিডনির পাথর দূরীকরণে দারুন এক পথ্য। পেঁয়াজের রসের সঙ্গে তালমিছরি মিশিয়ে খেতে থাকুন। কিছুদিনের মধ্যেই ইউরিনের সঙ্গে কিডনি স্টোন বেরিয়ে যাবে।
  • তালমিছরি পেটের ব্যথার উপশমে কার্যকর। পাতলা পায়খানার সমাধানেও দারুন কাজ করে এটি।
Categories : Blog, Uncategorized